খাঁটি বাঙাল

মহাকবি মাইকেল একবার বেড়াতে গিয়েছিলেন ঢাকা শহরে। সেখানকারী কিছু নব্যযুবক তাঁকে একদিন আমন্ত্রণ জানান এক সাহিত্য সভায়। সেই সভায় সেই নব্যযুবকের দল মাইকেলের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘হে কবিবর, আপনার বিদ্যাবুদ্ধি মমতা প্রভৃতির দ্বারা আমরা যেমন মহাগৌরবান্বিত হই, তেমনি আপনি ইংরেজ হইয়া গিয়াছেন শুনিয়া আমরা ভারি দুঃখিত হই। কিন্তু আপনার সঙ্গে আলাপ করা মাত্র আমাদের সে ভ্ৰম দূর হইল।’

নব্যযুবকদের কথা শুনে কবি হেসে বলেন, ‘আমার সম্বন্ধে আপনাদের আর যে কোনো ভ্ৰমই হউক, আমি সাহেব হইয়াছি এ ভ্রমটি হওয়া ভারি অন্যায়। আমার সাহেব হইবার পথ বিধাতা রোধ করিয়া রাখিয়াছেন। আমি আমার বসিবার ও শয়ন করিবার ঘরে একখানি আরশি রাখিয়া দিয়াছি। এবং আমার মনে সাহেব হইবার ইচ্ছা যখন বলবৎ হয় তখন আমনি আরশিতে মুখ দেখি। আমি শুধুমাত্র বাঙালি নাহি। আমি খাঁটি বাঙালি। আমার বাটি যশোেহর।’

মাইকেলের রসিকতা শুনে নব্যযুবকদের সভায় হাসির রোল উঠল।

%d bloggers like this: