Tag archives for মৃত্যু

চড়া দাম

একটি প্রদর্শনীর আয়োজক বলছেন একজন চিত্রশিল্পীকে, ‘আপনার জন্য একটি সুসংবাদ এবং একটি দুঃসংবাদ আছে।’ চিত্রশিল্পী: বলুন, শুনি। আয়োজক: গতকাল সন্ধ্যায় এক লোক এসেছিল প্রদর্শনীতে। সে আমাকে ডেকে আপনার আঁকা...
বাকিটুকু পড়ুন

গুণীজন কহেন – মে ১৪, ২০১২

আমি নিঃসন্দেহে মনে করি যে তারাই পরিশ্রম করে সময় কাটায়, যাদের কিছুই করার নেই। অস্কার ওয়াইল্ড আইরিশ সাহিত্যিক ফ্যাশন মডেলদের মৃত্যুর প্রধান কারণ হলো, রাস্তার খানাখন্দের ভেতর পড়ে যাওয়া।...
বাকিটুকু পড়ুন

গুণীজন কহেন – মে ০৭, ২০১২

একজন নারীকে সামলানোর দুটি উপায় আছে, তার একটিও কেউ জানে না। ফ্রাংক ম্যাককিনি হুবার্ড, মার্কিন কার্টুনিস্ট সবাই একদিন মরবে। তাদের শুধু একটু সময় দিন। নিল গেইম্যান, ইংরেজ লেখক সময়...
বাকিটুকু পড়ুন

গুণীজন কহেন – এপ্রিল ৩০, ২০১২

যা কিছুই ঘটুক না কেন, কেউ না কেউ তা সিরিয়াসলি নেওয়ার একটা না একটা উপায় বের করবেই। ডেভ ব্যারি মার্কিন লেখক টাকা কখনো আপনাকে সুখ দিতে পারে না। আমার...
বাকিটুকু পড়ুন

ফার্মভিলের ফসলে নিয়মিত পানি

মৃত্যুর আগমুহূর্তে স্বামী বলছে স্ত্রীকে, ‘ওগো, আমার মৃত্যুর পর তুমি আমার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটা দেখে রেখো।’ স্ত্রী: তুমি কোনো চিন্তা কোরো না। তোমার মৃত্যুর পরও আমি সব সময় তোমার স্ট্যাটাস...
বাকিটুকু পড়ুন

একটি তুলনামূলক গল্প

আমার যখন জন্ম হলো, সেই উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আমার ধর্মপিতা বললেন, ‘সবাইকে অভিনন্দন। কোনো শিশুর জন্ম মানেই একটি অর্জন এবং অর্জনটি শুধু সেই পরিবারেরই নয়, আমাদের পুরো সমাজের। আর...
বাকিটুকু পড়ুন

বিশেষজ্ঞ – তারাপদ রায়

দিল্লী থেকে বিশেষজ্ঞ এসেছেন সুদূর দীঘাতে কাজু চাষ পর্যবেক্ষণ করতে। বিশেষজ্ঞ মহোদয় বাঙালি, ইনি সম্প্রতি মার্কিন দেশ থেকে ছয় মাসের কাজু চাষের ট্রেনিং নিয়ে এসেছেন। আমেরিকায় কাজুর চাষ হয়...
বাকিটুকু পড়ুন

এই তো জীবন – আলেক্সান্দর শ্মিদ

ঘুম ভাঙল সকালে। চকচকে সূর্য বাইরে, গান গাইছে পাখিরা, অফিসে যেতে হবে না। সন্ধ্যায় টিভিতে ফুটবল। আহা! আলোকিত হয়ে উঠল আত্মার ভেতরটা। বিছানা ছাড়লাম, মুখ-হাত ধুয়ে আফটার শেভ মাখলাম...
বাকিটুকু পড়ুন

গুণীজন কহেন – নভেম্বর ২১, ২০১১

ছেলেপুলেদের কীভাবে বড় করতে হয়, সবাই তা জানেন। কেবল তাঁরাই জানেন না, যাঁদের ছেলেপুলে আছে। পি. জে. ও’ররকে মার্কিন লেখক বাড়ির কাজকর্ম মৃত্যুর কারণ হতে পারে না, তবে সেধে...
বাকিটুকু পড়ুন

অসিলক্ষণ পণ্ডিত – সুকুমার রায়

রাজার সভায় মোটা মোটা মাইনেওয়ালা অনেকগুলি কর্মচারী। তাদের মধ্যে সকলেই যে খুব কাজের লোক, তা নয়। দু’চারজন খেটেখুটে কাজ করে আর বাকি সবাই ব’সে ব’সে মাইনে খায়। যারা ফাঁকি...
বাকিটুকু পড়ুন

পাণ্ডা – সৈয়দ মুজতবা আলী

আমি তীর্থপ্রাণ। অর্থাৎ তীর্থ দেখলেই ফুল চড়াই, ‘শীরনী’ বিলাই। ভারতীয় তাবৎ তীর্থ যখন নিতান্তই শেষ হয়ে গেল তখন গেলুম জেরুজালেম। ইহুদি, খ্রীষ্টান, মুসলমান এই তিন ধর্মের ত্রিবেণী জেরুজালেম। বিশ্বপাণ্ডার...
বাকিটুকু পড়ুন

অভিনয় – জেমস প্যাটিনসন

আমি জাহাজের ‘পারসার’। সব রকম খরচাপত্তর আমার হাত দিয়ে হয়। জাহাজে থাকাকালীন যাবতীয় লোকের ব্যাংকার আমি। এই জাহাজে এবার যাচ্ছেন তরুণ আর্ল ম্যাকলাউড। ইনি কোটিপতি হেনরি ম্যাকলাউডের একমাত্র সন্তান।...
বাকিটুকু পড়ুন

মৃত্যুর পরের জনমে বিশ্বাস

বস বলছেন কর্মচারীকে, ‘আপনি কি মৃত্যুর পরের জনমে বিশ্বাস করেন?’ কর্মচারী: জি স্যার। বস: হুমম্, করারই কথা। গতকাল আপনি মায়ের মৃত্যুবার্ষিকীর কথা বলে অফিস থেকে ছুটি নেওয়ার পর আপনার...
বাকিটুকু পড়ুন

স্পর্শ – অমূল্য দাশগুপ্ত

আর পনেরো ষোলো হাত গেলেই তীর পান, এমন সময়ে চকিতের মতো একটা কথা তাঁহার মনে হইল। পণ্ডিত রামেশ্বর বালগঙ্গাধর ভেঙ্কটনারায়ণম শিহরিয়া উঠিলেন। কতকটা কণ্ঠে এবং কতকটা ইঙ্গিতে কুম্মারাপ্পাকে প্রশ্ন...
বাকিটুকু পড়ুন

ওরে বাবা! – আদনান মুকিত

পার্কে বসে বাদাম চিবাচ্ছি। নিজেকে একটি বিশেষ গোত্রের প্রাণী মনে হলেও কিছু করার নেই। প্রেমে পড়লে প্রেমিকার সঙ্গে পার্কে বসে বাদাম চিবানো মোটামুটি ঐতিহ্যের পর্যায়ে পড়ে। প্রেমিকা রিয়া অত্যন্ত...
বাকিটুকু পড়ুন

অনুরাগ ও বিরাগ – এ করিয়াগিন

অনুরাগ প্রথমজন ভালোবাসে মদ্যপান। আর তাই তার লিভার ও কিডনি প্রায়ই ব্যথা করে। দ্বিতীয়জন ভালোবাসে ধূমপান। তাই তার হার্ট আর ফুসফুসে সমস্যা। প্রথমজনের সঙ্গে দ্বিতীয়জনের দেখা হয় যখন, তাদের...
বাকিটুকু পড়ুন

গণশার চিঠি – লীলা মজুমদার

ভাই সন্দেশ, অনেক দিন পর তোমায় চিঠি লিখছি। এর মধ্যে কত কী যে ঘটে গেল যদি জানতে, তোমার গায়ের লোম ভাই খাড়া হয়ে গেঞ্জিটা উঁচু হয়ে যেত, চোখ ঠিকরে...
বাকিটুকু পড়ুন

বিখ্যাত চিত্রনায়ক

একজন উঠতি চিত্রনায়ক বলছেন তাঁর বাড়িওয়ালাকে, ‘আমার মৃত্যুর পর আপনার বাড়ি তো বিখ্যাত হয়ে যাবে। লোকজন বাড়ির পাশ দিয়ে যাবে আর বলবে, ‘এই বাড়িতে একজন বিখ্যাত চিত্রনায়ক বসবাস করত…।’...
বাকিটুকু পড়ুন

ঠকানো প্রশ্ন – সুকুমার রায়

গণেশ দাদা বললেন, ‘একটা গোরুর গলায় দশ হাত লম্বা মোটা দড়ি বাঁধা। সেখান থেকে পঁচিশ হাত দূরে এক আঁটি ঘাস আছে। কেউ ঘাস এগিয়ে দিল না, দড়ি ছিঁড়তে হলো...
বাকিটুকু পড়ুন

অদ্বিতীয়া – বনফুল

বেশ ছিলাম। আপিসে সাহেব এবং গৃহে মা-ষষ্ঠী আমার প্রতি সদয় ছিলেন। সাহেব আমার মাহিনা এবং মা-ষষ্ঠী আমার সংসার বাড়াইতেছিলেন। আমার পিতৃমাতৃকুলে আর কেহ ছিল না। উত্তরাধিকার সূত্রে কিছু টাকাও...
বাকিটুকু পড়ুন